শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

মালদ্বীপের কাছে আছড়ে পড়ল চীনা রকেটের সেই ধ্বংসাবশেষ

ডেস্ক রিপোর্ট
  • হালনাগাদ সময় : রবিবার, ৯ মে, ২০২১
  • ৪৩ বার

চীনের বৃহত্তম নভোযান ‘লংমার্চ ফাইভ বি’র সেই ধ্বংসাবশেষটি অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনা ছাপিয়ে মালদ্বীপের কাছে ভারত মহাসাগরের একটি অংশে আছড়ে পড়েছে।

রোববার সকালে বেইজিং এ তথ্য জানিয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ সংস্থা।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, চীনা রকেটের ধ্বংসাবশেষের ওই অংশটি আছড়ে পড়ার আগে বেশিরভাগ অংশ বায়ুমণ্ডলে থাকা অবস্থায়ই আগুনে পুড়ে যায়।

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে অবশ্য আগেই জানানো হয়েছিল যে, রকেটের এ ধ্বংসাবশেষটি রোববার সকাল নাগাদ পৃথিবীতে আঘাত হানবে।

চীনের ন্যাশনাল স্পেস অ্যামিনিস্ট্রেশনের দেয়া তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের সময় শনিবার রাত ১০টা ২৪ মিনিটে বা বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল ৮টা ২৪ মিনিটে রকেটের ওই ধ্বংসাবশেষটি মালদ্বীপের কাছে ভারত মহাসাগরে আছড়ে পড়ে।

এর আগে, ধ্বংসাবশেষটি ইতালির জনবহুল কোনো এলাকায় পড়তে পারে বলে জানিয়েছিল দেশটির মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ও জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। যার কারণে ইতালির উমব্রিয়া, লাজিও, আবরুজ্জো, মোলিসে, ক্যাম্পানিয়া, ব্যাসিলিকাটা, পুগলিয়া, কালাব্রিয়া, সিসিলি ও সার্ডিনিয়া অঞ্চলে সতর্কতাও জারি করে স্থানীয় প্রশাসন।

তবে শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন’র রিপোর্টার জিম স্কিউটো জানান, ‘লং মার্চ ফাইভ বি’ চীনা নভোযানের ধ্বংসাবশেষটি তুর্কমেনিস্তানের কোনো অংশে আছড়ে পড়তে পারে।

প্রসঙ্গত, চীনা মহাকাশ স্টেশন স্থাপনের জন্য ‘লং মার্চ ৫বি রকেট’টি গত ২৯ এপ্রিল উৎক্ষেপণ করা হয়। রকেটটিকে সফলভাবে তিয়ানহে স্পেস স্টেশনের মডিউলকে কক্ষপথে স্থাপন করা গেলেও পরে সেটির ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ হারায় গ্রাউন্ড স্টেশন। এর ভেতরের ১০০ ফুট লম্বা (৩০ মিটার) একটি অংশ রকেট থেকে আলাদা হয়ে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে ঢুকে পড়ে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102