শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায় ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ দফা দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন পূজা মণ্ডপে সন্ধ্যায় আরতির পর প্রবেশ নিষেধ

“বেওয়ারিশ প্রাণীদের জন্য তিন বন্ধুর ভালোবাসা”

সংবাদদাতার নাম
  • হালনাগাদ সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২০
  • ৮১ বার

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ  দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এ কারণে প্রায় সব জায়গায় চলছে লকডাউন। প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না কেউ। খুলছে না কোনো খাবার হোটেল। এ কারণে বর্তমানে স্থবির হয়ে পড়া ঠাকুরগাঁও শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার বেওয়ারিশ কুকুরগুলো খুবই কষ্টে আছে। অভুক্ত থাকতে হচ্ছে তাদের।

তবে এসব বেওয়ারিশ কুকুরগুলোর পাশে দাঁড়াতে ঠাকুরগাঁও শহরের ৩ বন্ধু মিলে নিয়েছেন একটি ভিন্ন উদ্যোগ।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় একটি পোস্টার লাগানো দেখা গেছে। দেয়ালে বা খুঁটিতে লাগানো পোস্টারের নিচে রাস্তায় একটি করে বক্স রাখা হয়েছে।

বেওয়ারিশ কুকুরগুলোর জন্য ভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা ওই ৩ বন্ধু হলেন- শহরের পূর্ব গোয়ালপাড়া এলাকার ফজলুর রহমানের ছেলে রাকিব আল রিয়াদ, একই এলাকার ফারুকুজ্জামানের ছেলে সোহানুর জামান প্রিন্স ও বিআরটিসি কাউন্টার এলাকার আনিস রহমানের ছেলে জাহিদ হাসান।

পোস্টারে তারা লিখেছেন- আপনার বেঁচে যাওয়া খাবারগুলো ফেলে না দিয়ে এই বক্সে রাখুন। এতে অন্তত ক্ষুধার্ত কুকুরগুলো কিছু খেতে পারবে। অনাহারে দিন কাটছে এই কুকুরগুলোর। তাদের বাঁচাতে এগিয়ে আসুন।

জানা গেছে, ঠাকুরগাঁও শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় প্রায় ১৮০০ থেকে ২ হাজার বেওয়ারিশ কুকুর রয়েছে। এসব কুকুর বিভিন্ন হোটেলের ফেলে দেয়া খাবার খেয়ে বেঁচে থাকত। বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে খাবার হোটেলগুলো বন্ধ রয়েছে। এ কারণে অভুক্ত থাকতে হচ্ছে কুকুরগুলোকে।

দুপুরে শহরের বড় মাঠ এলাকায় বাজার করতে এসেছিলেন হাজীপাড়া এলাকার বাসিন্দা জয়নাল। মাঠের প্রবেশ পথে ওই পোস্টারটি দেখেন তিনি। তিনি বলেন, ‘এই খারাপ সময়ে আমরা নিজেদেরকে নিয়ে ব্যস্ত। কুকুরের প্রতি এমন ভালোবাসা দেখে আমার হৃদয় ছুঁয়ে গেছে। এই অবুঝ প্রাণীগুলোর কথা আমাদের সবার চিন্তা করা উচিত।’

শহরের গোয়ালপাড়া এলাকার বাসিন্দা মোমিনুল ইসলাম বলেন, ‘সকালের দিকে ৩ জন ছেলে এসে বাসার সামনে একটি খুঁটিতে পোস্টার লাগিয়েছেন। যাতে লেখা রয়েছে- আপনার বাসার বেঁচে যাওয়া খাবারগুলো ফেলে না দিয়ে এই বক্সে রাখুন। এতে অন্তত ক্ষুধার্ত কুকুরগুলো কিছু খেতে পারবে। লেখাটি দেখার পর মনের ভেতর থেকে অন্য রকম এক ভালোবাসা কাজ করছে। তাদের এই মানবিক কাজটিকে ধন্যবাদ জানাই। এখন থেকে আমি আমার বাসার বেঁচে যাওয়া খাবারগুলো এখানে রেখে যাব। এ বিষয়ে অন্যদের এগিয়ে আসতে অনুরোধ করব।’

অবশেষে কথা হয় ভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা ওই ৩ বন্ধুর সাথে। তারা বলেন, ‘আমরা ৩ বন্ধু মিলে শহরের এক রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম।

এ সময় আমাদের হাতে একটি পাউরুটির প্যাকেট ছিল। আর এই পাউররুটির প্যাকেট দেখে বেওয়ারিশ কয়েকটি কুকুর আমাদের চারপাশ থেকে জড়িয়ে ধরে। এই ক্ষুধার্ত কুকুরগুলোকে দেখে খুব মায়া হচ্ছিল। পরে আমরা ওদের জন্য কিছু করার সিদ্ধান্ত নেই।’

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪২,৪৬১,৬৮৭
সুস্থ
৩১,৪১৬,৫৯৯
মৃত্যু
১,১৪৮,৬৯৪
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102