শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায় ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ দফা দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন পূজা মণ্ডপে সন্ধ্যায় আরতির পর প্রবেশ নিষেধ

বাবা-মার ভালোবাসায় ভাগ বসানোয় বোনকে হত্যা, ভাই গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার
  • হালনাগাদ সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২১ বার
বাবা-মার ভালোবাসায় ভাগ বসানোয় বোনকে হত্যা, ভাই গ্রেফতার

রাজধানীর কড়াইল বস্তিতে চার বছর বয়সী শিশু মিম আক্তার হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তার বড় ভাই আল-আমিনকে (১৪) আটক করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিকভাবে গ্রেফতার কিশোর আল- আমিন হত্যার দায় স্বীকার করেছে। তার ভাষ্য মতে, ছোট বোন মিম জন্মের পর থেকে তার প্রতি বাবা-মায়ের ভালোবাসা কমতে থাকে। যত দিন যায় বাবা-মা তার প্রতি উদাসিন হয়ে পড়ে। যে কারণে ঘুমন্ত মিমকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বিছানার নিচে লুকিয়ে রাখে। তারপর সুবিধাজনক সময়ে মরদেহ গোসলখানায় রেখে আসে।

বৃহস্পতিবার সকালে র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক মো. কামরুজ্জামান এ তথ্য গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কড়াইল বস্তির একটি বাসার গোসলখানা থেকে মিমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

কামরুজ্জামান আরো বলেন, শিশুটির বাবার নাম মো. লিটন মিয়া (৩৯) ও মা রুখসানা আক্তার। লিটন আমড়া বিক্রি করেন এবং রুখসানা গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করেন। সকাল ৮টা থেকে মিমকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। মরদেহ উদ্ধারের পরে এ ঘটনায় লিটন মিয়া বাদী হয়ে বনানী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নম্বর: ৩২।

লিটন মিয়ার বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, তিন বছরের বেশি সময় ধরে লিটন মিয়া ওই ঠিকানায় সপরিবারে বসবাস করেন। তার বাড়ি নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায়। গতকাল সকালে তারা স্বামী-স্ত্রী কাজে চলে যাওয়ার পরে বাসায় মিম আর তার বড় ভাই ছিল। বাসায় ফিরে মেয়েকে না পেয়ে খুঁজাখুঁজি শুরু হয়। পাশের আল-মিনা মসজিদের মাইকে নিখোঁজের ঘোষণা দেয়া হয়। সকাল ১০টার দিকে বাসা থেকে কিছু দূরে গোসলখানায় মিমের মরদেহ পাওয়া যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪২,৪৬০,৫৩৯
সুস্থ
৩১,৪১৩,৬০৮
মৃত্যু
১,১৪৮,৬৮৮
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102