মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্গাপূজা উপলক্ষে মির্জা ফয়সাল আমিনের এর পক্ষ থেকে আর্থিক অনুদান মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায় ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ দফা দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

পিতার পরিচয় পেতে আদালতে ছেলে

স্টাফ রিপোর্টার
  • হালনাগাদ সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫২ বার
পিতার পরিচয় পেতে আদালতে ছেলে

আনোয়ার হোসেন (৩০)। সে জানে না কে তার পিতা। পিতার পরিচয় পেতে অবশেষে আদালতের আশ্রয় নিতে হয়েছে তাকে। অনিশ্চয়তা আর সংশয়ের মধ্যে এখনো বাবার পরিচয় পেতে আদালতে ঘুরছেন ছেলে আনোয়ার।

সর্বশেষ পিতার পরিচয় পেতে পিতার দেওয়া একটি মামলায় মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের স্বরনাপন্ন হতে হয়েছে। কিন্তু বিজ্ঞ আমলী ম্যাজিস্ট্রেট আদালত পিতা ও পুত্রের ডিএনএ টেস্টের নির্দেশ দিলে বাদী নিজেই মামলাটি প্রত্যাহার করে নেয়।

ঘটনাটি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বেজপাড়া গ্রামের। মামলার বিবরণে জানা গেছে, উপজেলার বেজপাড়া গ্রামের আকবর আলীর ছেলে বাছির হোসেনকে পিতা পরিচয় দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মামলা করেন আনোয়ার হোসেন ও মঞ্জুরা খাতুনের নামে। মামলা নম্বর কালী-সিআর ১১/২০। এই মামলায় মঙ্গলবার ঝিনাইদহ আদালতে শুনানির দিন ধার্য ছিল।

এদিকে এই মামলায় ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত ঝিনাইদহ আদালত কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। অপরদিকে বাদী বাছির হোসেন ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট আসার পূর্বেই স্বেচ্ছায় ওই মামলাটি প্রত্যাহার করেছেন। পিতার পরিচয় চাওয়া সন্তান আনোয়ার হোসেন জানান, সামাজিক ভাবে বিচার চাওয়ায় আমার পিতা আমাকে ও আমার মাকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় নিয়মিত হাজিরা দিয়ে আসছি। গ্রামের অনেকেই বলেছেন বাছির হোসেনই আমার বাবা।

ঘটনাটি নিস্পত্তি করতে গ্রামেও অনেকবার সামাজিক ভাবে মীমাংসা করার চেষ্টা করা হয়। আদালত আমাদের ডিএনএ টেস্টের আদেশ দিয়েছেন। ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

এ ব্যাপারে বাদী বাছির হোসেন জানান, আনোয়ার হোসেন ও মঞ্জুরা খাতুন আমার সম্পত্তির লোভে প্রতারনা মূলক ভাবে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত হয়। যে কারণেই সামাজিক ভাবে মানসম্মান ক্ষগ্রিস্থ হওয়ার কারণে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছি। আমি স্বেচ্ছায় মামলাটি প্রত্যাহারের আবেদন করেছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪৩,৭৭৪,৮২০
সুস্থ
৩২,১৭৮,১৭৭
মৃত্যু
১,১৬৪,৪৮৬
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102