রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

তিস্তার পানি বণ্টনের সমাধান হবে অচিরেই: সেতুমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট
  • হালনাগাদ সময় : মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৭ বার

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে অচিরেই তিস্তা পানি বণ্টনের সমাধান হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস সার্ভিস উদ্বোধন শেষ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে মন্ত্রী এ কথা জানান।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন গঙ্গার পানি বণ্টনের কথা ভুলে গেলেও আওয়ামী লীগ সরকার ভুলে যায়নি। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে অচিরেই তিস্তা পানি বণ্টনেরও সমাধান হবে এবং এ বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, বিআরটিসির যাত্রীবাহী গাড়ির সংখ্যা বেড়েছে। কিন্তু যে হারে আয় বাড়ার কথা সে হারে বাড়ছে না। তবুও দেশের জনগণকে সেবা দিতে সরকার সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

এ সময় মহাসড়কে ঘন কুয়াশা থাকায় সাবধানে গাড়ি চালাতে চালকদের প্রতিও নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, ‘যত আসন তত যাত্রী’ নীতি প্রতিপালনের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রতিটি গাড়িতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী পরিবহন করতে হবে। এই নিয়ম না মানলে আইনগতভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে মালিক ও শ্রমিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, সরকার সীমান্ত এলাকায় স্থিতিশীলতা রক্ষা এবং উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। সীমান্ত নিয়ে বিএনপির কর্মসূচি লোক দেখানো ছাড়া আর কিছুই নয়।

বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে তাদেরকে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার গ্যারান্টি দেয়া উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তাদের গণতন্ত্র হচ্ছে হাওয়া ভবনের লুটেরা সাম্রাজ্য পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা। নির্বাচনে অংশ নিয়ে ভোটের দিন সরে যাওয়াই বিএনপির গণতন্ত্র। মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও কাজে তাদের কোনো গণতন্ত্র খুঁজে পাওয়া যায় না। বিএনপির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল কত বছর আগে হয়েছিল, তা হয়তো ফখরুল সাহেব ভুলেই গেছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আসলে বিএনপির সমস্যা হলো তারা এখন বহুধাবিভক্ত। গণতন্ত্র একটি বিকাশমান প্রক্রিয়া। হঠাৎ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা পায় না। গণতন্ত্র এক চাকার সাইকেল নয়। গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিতে হলে প্রয়োজন সব পক্ষের সদিচ্ছা।

তিনি আরো বলেন, দেশে গণতন্ত্র আছে বলেই বিএনপি প্রতিনিয়ত সমালোচনা করছে। এমন কোনো দিন নেই যে, বিএনপির নেতারা সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করেন না।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প আগামী মাসে একনেকে অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করা হবে।

এ সময় ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, বিআরটিসির চেয়ারম্যান, সিলেট বিভাগীয় কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজিসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102