সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্গাপূজা উপলক্ষে মির্জা ফয়সাল আমিনের এর পক্ষ থেকে আর্থিক অনুদান মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায় ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ দফা দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

ঠাকুরগাঁওয়ে “সময়ের দাবি” মানুষের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছে ত্রাণের খাবার সামগ্রী

সংবাদদাতার নাম
  • হালনাগাদ সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২০
  • ৭৭ বার

জাহিদ হাসান, ঠাকুরগাঁও  প্রতিনিধিঃ“সময়ের দাবি” ত্রাণ যাবে বাড়ি এই স্লোগানকে সামনে রেখে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঠাকরগাঁও সদর উপজেলার পৌর এলাকায় বসবাসরত নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারদের মাঝে ত্রাণের খাবার সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন বাড়ি বাড়ি।

মুলত এ কর্মসূচি সদর উপজেলার পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডের বাসিন্দারা যারা কারও কাছে সাহায্য চাইতে বা ত্রাণের স্লীপ নিতে বা লাইনে দাঁড়িয়ে ত্রাণ নিতে সংকোচবোধ করেন কিন্তু বাড়িতে খাদ্যের সংকট আছে তাদের জন্য বাসায় বিনামূল্যে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসন এর ‘সময়ের দাবি’।
এ কর্মসূচীটি জেলা প্রশাসন শুরু করেছে গত ৬ এপ্রিল থেকে। বুধবার (১৫ এপ্রিল) পর্যন্ত প্রায় ১৬ শ পরিবারকে এ কার্যক্রমের মাধ্যমে খাবার সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসন।
এতে খাবার সামগ্রী পেয়ে ৮নং ওয়ার্ডের মুন্সিপাড়ার তহিদুর রহামান জানান, ডিসি সাহেব একটা মোবাইল নাম্বার দিয়েছিলেন ফেসবুকে, সেই নাম্বারে কলদিয়ে আমার নাম ঠিকানা ও ভোটার আইডির নাম্বার দিয়েছিলাম। পরে তাদের লোকজন এসে আমার বাড়ির সামনে আমাকে ফোন দিয়ে ত্রাণ দিয়ে গেছেন। এতে আমাদের অনেক উপকার হয়েছে। আমরা অত্যন্ত খুশি ও হাজার হাজার কৃতজ্ঞ।
৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা দিপঙ্কর বলেন, আমি অনেক বার নাম্বারটি কল ডুকানোর চেষ্টা করি পরে একবার কল ডুকছে। কল ডুকাতে অনেক কষ্ট হলেও কল দেওয়ার পরে আজকে ত্রাণ পেয়ে আমি অনেক খুশি।
৮ নং ওয়ার্ডের ফাতেমা ত্রাণ পেয়ে জানান, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অনলাইনে কল করে আমি ত্রাণ পেয়েছি।
নিশ্চিন্তপুরের হাসিনুর ইসলাম জানান, তিন দিন থেকে নাম্বার গুলোতে কল ডুকানোর চেষ্টা করে কল ডুকাতে পেরেছি। চতুর্থ দিনে ত্রাণ পেয়ে অনেক ভালো লাগছে আমার।
জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম জানান, “সময়ের দাবি” আমাদের জেলা প্রশাসনের একটা ইনোভেশন, যারা বিশেষ করে কারও কাছে কিছু চাইতে সংকোচবোধ করে কিন্তু তাদের বাসায় খাদ্যের সংকোট আছে বিশেষ করে তাদের জন্য আমরা হটলাইনে ফোন কলের মাধ্যমে তাদের নাম তালিকায় ভুক্ত করে তাদের বাড়িতে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছি আমরা। এতে করে তাদেরকে ত্রাণের জন্য লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছেনা ও ধন্নাও দিতে হচ্ছে না এবং তাদের পরিচয়ও প্রকাশ পাচ্ছে না। এতে আমরা জনগণের ভালো সাড়া পেয়েছি। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি সকলকেই এর আওতায় আনার। এটার পরিধি আরও বৃদ্ধি করা হবে এবং এটিকে উপজেলা পর্যায়েও বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানান তিনি। এপর্যন্ত আমাদের ‘সময়ের দাবি’ প্রায় ১৬শ পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

তবে ত্রাণ পেয়ে যেমন অনেকে খুশি হয়েছেন তেমনি আবার অনেকে ত্রাণ না পেয়ে, ৭ নং ওয়ার্ডে করিউল ইসলাম সহ নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক কয়েকজন ক্ষোভ জানিয়ে বলেছেন, যারা মানুষের কাছে চাইতে পারে, যারা কয়েকবার ত্রাণ পেয়েছে তারাই আবার ত্রাণ পাচ্ছে কিন্তু নিম্ন মধ্যবিত্ত যারা আছি তারা আমরা কিছুই পাচ্ছি না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন করে বলেন যেন তাদের বিষয়টা গুরুত্বসহকারে দেখা হয়।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪৩,৫০৩,৮২৩
সুস্থ
৩১,৯৮২,১১৫
মৃত্যু
১,১৬১,১১০
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102