শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৬:২৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ে যাত্রা শুরু করল অনলাইন ভিত্তিক খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ‘ফুডপ্যান্ডা’ ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্গাপূজা উপলক্ষে মির্জা ফয়সাল আমিনের এর পক্ষ থেকে আর্থিক অনুদান মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায়

ঠাকুরগাঁওয়ে ভারীবর্ষণে পানিতে ভেসে গেল কোটি টাকার রাস্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • হালনাগাদ সময় : মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৭ বার
ঠাকুরগাঁওয়ে ভারীবর্ষণে পানিতে ভেসে গেল কোটি টাকার রাস্তা

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় ভারীবর্ষণে পানিতে ভেসে গেছে কোটি টাকা দিয়ে ছয় মাস আগে নির্মাণ করা জাউনিয়া-সাবাজপুর গ্রামের চলাচলের একমাত্র পাকা রাস্তা।

এতে ভোগান্তিতে পড়েছে জাউনিয়া, সাবাজপুরসহ কয়েকটি গ্রামের হাজার মানুষ।

স্থানীয়রা জানায়, মাটি ভরাট করে উঁচু না করে রাস্তা নির্মাণ ও নিম্নমানের পাকাকরণ কাজের জন্য দ্বিতীয় বারের মত সাবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের পশ্চিম পার্শের রাস্তাটি পানিতে ভেসে গেছে। এতে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে মূল শহরের সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে জাউনিয়া, সাবাজপুরসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের।
সাবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ জানান, রাস্তাটি পাকাকরণ করার এক বছরও হয়নি। অতিবৃষ্টির ফলে প্রায় ৮০ শতাংশ রাস্তা ভেসে গেছে পানিতে। রাস্তাটি সংস্কারের জন্য স্থানীয় প্রকৌশলীকে বলা হয়েছে। দ্রুত সংস্কার না করা গেলে বিদ্যালয়ে যাতায়াতসহ স্থানীয়দের চরম ভোগান্তি পোহাতে হবে।

উপজেলা প্রকৌশল সুত্রে জানা যায়, গেল ছয় মাস আগে প্রায় কোটি টাকা বরাদ্দে জাউনিয়া বাজার থেকে সাবাজপুর গ্রাম পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরণ করা হয়। কাজটি সম্পন্ন করার সময় স্থানীয়দের দাবি ছিল রাস্তাটি উঁচু করে মাটি ভরাটের পর পাকা কারণ করার। তবে সেটি না হওয়ার কারণে পানিতে ভেসে গেছে সব।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মাইনুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আর বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় মাটি হলো বেলে মাটি একটু চাপ দিলেই ভেঙে যায়। নির্মাণের ৬ মাস পর কিভাবে রাস্তা ভেঙে যায়? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভাঙতেই পারে ৬ মাস কেন ২/১ মাসও রাস্তা ভাঙতে পারে এটা কোন ব্যাপার না। তবে বৃষ্টি কমলেই আমরা রাস্তা মেরামতের কাজে হাত দিবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪৬,০১৮,০২২
সুস্থ
৩৩,৩০৭,৩৪৮
মৃত্যু
১,১৯৫,৬১৬
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102