বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশে লাখো পোশাকশ্রমিক ক্ষতিগ্রস্ত জামাইয়ের ভুয়া প্রেসক্রিপশন, স্বাক্ষর শ্বশুরের কক্সবাজারের মহেশখালীতে ৬ দিন ধরে নিখোঁজ গৃহবধূর পুঁতে রাখা লাশ উদ্ধার কুড়িগ্রামে ৫ বছরের শিশু ধর্ষন মামলার আসামী গ্রেফতার কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশের ৭৮টি বিটে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী পুলিশিং সমাবেশ উলিপুরে গলায় ফাঁস দি‌য়ে বৃদ্ধার আত্মহত‌্যা কুড়িগ্রামের কালজানী নদী থেকে মরদেহ উদ্ধার ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষন ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে একযোগে ৫৩টি ইউনিয়নে বিট পুলিশিং সমাবেশ ঠাকুরগাঁওয়ে মা ও দুই সন্তানের মৃত্যু জনমনে জাল ছড়াচ্ছে কুড়িগ্রামের রৌমারীতে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মেম্বারদের অনাস্থা

ঠাকুরগাঁওয়ের অটোচার্জার চালক মানিক ‘গান ও কবিতা’ লিখে প্রতিষ্ঠিত হতে চায়

স্টাফ রিপোর্টার
  • হালনাগাদ সময় : মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৯৪ বার

ছেলে বেলা থেকে শখের বশে লিখতো কবিতা, ২০১৮ সাল থেকে শুরু করেন গান লিখা। ইতিমধ্যে তাঁর রচিত গান ও কবিতা ব্যাপক সাড়া ফেলেছে শিল্পী ও সুরকারদের মাঝে। তবে সব সময় তাঁর গান ও কবিতা লিখা হয়ে ওঠেনা, জীবন-জীবিকার তাগিদে বেছে নিতে হয়েছে আটোচার্জার চালনা। সারাদিন ভাড়া খেটে রাতে যদি সময় জোটে তখন তিনি চালিয়ে যান তার শিল্পচর্চা।

এতোক্ষণ যে লোকটির কথা বলছিলাম তার নাম মানিক চন্দ্র বর্মন।বাড়ী ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলারহাট ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামে।

কবি ও গীতিকার হিসেবে প্রাতিষ্ঠানিক কোন স্বীকৃতি না থাকলেও তার রচিত গান ও কবিতা সকল শ্রেণিপেশার মানুষের কাছেই বেশ প্রশংসিত হয়েছে। কবি মানিক চন্দ্র বর্মন জানান, সেই ছোটকাল থেকে মনের মধ্যে পুষে রেখেছি কবি ও গীতিকার হওয়ার বাসনা। চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি, এখন মানুষের চাহিদা থাকলে আরও অনেক অনেক গান ও কবিতা লিখার আগ্রহ জাগবে। জীবিকার তাগিদে অটো চালাতে হলেও কবি ও গীতিকার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে চাই।আপনাদের সকলের দোয়া ও আশীর্বাদ আমার কাম্য………

বর্তমান করোনা ভাইরাস নিয়ে কবি ও গীতিকার মানিক চন্দ্র বর্মনের স্বরচিত গান

মোরা চীনের পন্য পেয়ে ধন্য,

অল্প টাকায় ঘর সাজাই।

চীন এমন পন্য দিল হাসপাতালে ডাক্তার নাইরে,

হাসপাতালে ডাক্তার নাই।

চীনে হয় যে চিনাচিনি পরে হয় যে জানাজানি,

আবার নব বধু ঘরে আনি।

তবু চীনের পন্য চাইরে,

তবু চীনের পন্য চাই।

চীন এমন পন্য দিল হাসপাতালে ডাক্তার নাইরে

হাসপাতালে ডাক্তার নাই ।

আমরা সোনার বাংলার সোনার ছেলে,

দেখি যদি চক্ষু মেলে,

চীনের পন্য বেশি পাইরে,

চীনের পন্য বেশি পাই।

চীন এমন পন্য দিল হাসপাতালে ডাক্তার নাইরে

হাসপাতালে ডাক্তার নাই ।

আমরা দেখাই কত বাহাদুরি,

নিজে কত দম্ভ করি,

আবার পরের ধরে টানাটানি

নিজের বলতে কিছু নাইরে,

নিজের বলতে কিছু নাই।

চীন এমন পন্য দিল হাসপাতালে ডাক্তার নাইরে

হাসপাতালে ডাক্তার নাই।

 

কবি ও গীতিকার মানিক চন্দ্র বর্মনের স্বরচিত কবিতা

স্বার্থপরের কথা বলে সবাই,

সবাই স্বার্থপর ।

এই পৃথিবীর একটি কোণায়

আমার ছোট ঘর ।

স্বার্থের কথা হলে পরে,

স্বার্থপর হয় বিশ্বজুড়ে,

লেখক লেখে প্রকৃতির সনে,

নিজের প্রকাশ হবার তরে।

প্রেমিক দেখ প্রেমের তরে

সন্ন্যাসী হয় বন জঙ্গলে,

মন বিলিয়ে প্রেম বিলিয়ে

কৃষ্ণ পাবার তরে ।

শিক্ষার্থীর মন শিক্ষার সনে

শিক্ষার আলো জগৎ জুড়ে,

বন্ধু মানে সন্ধি করা

ফুরালে হয় শেষ,

স্বার্থের এই পৃথিবীতে আমার

ছোট একটি দেশ ।

এই পৃথিবীতে মাকে কেউ

বলে না স্বার্থপর,

মা আর সন্তানের অন্তরে হয়

মণি কোঠায় ঘর,

ভাবো যদি স্বার্থ লয়ে

পরে না বাদ কোন জনে।

বাবা বলে সন্তান মোর

বংশের হয় বাতি,

মা বলে সন্তান মোর

শেষ বয়সের চাবি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪১,০৯৪,৬৫৯
সুস্থ
৩০,৬৫৬,১৪৫
মৃত্যু
১,১৩০,৫৫০
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102