সংবাদ শিরোনাম
ঠাকুরগাঁওয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আলাল মাষ্টারের কক্ষে তালা !সুবিধাভোগির তালিকা নিয়ে দূর্ণীতির অভিযোগ ! হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকেও এলাকার ছিন্নমুল মানুষদের সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিলেন এমপি দবিরুল ঠাকুরগাঁওয়ে মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত করোনা জনসচেতনতায় রুহিয়ায় মাঠে নেমেছে প্রগতিশীল সেচ্ছাসেবী সংগঠন | ঠাকুরগাঁওয়ে আব্দুল্লাহ্ আল-ফাত্তা’র অর্থায়নে ৫০০ দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করোনা সন্দেহে রংপুরে পাঠানো একই পরিবারের পাঁচজন এখন ঠাকুরগাঁওয়ের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ঠাকুরগাঁওয়ে পাওয়ারট্রলীর সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ ! করোনা সন্দেহ,বিনা চিকিৎসায় মারা গেলেন মুক্তিযোদ্ধা ইউএনও’র সামনে সাংবাদিকদের পেটালেন পুলিশ! আটোয়ারীতে করোনা ভাইরাস ঠেকাতে সম্মিলিত প্রচেষ্টা

কর প্রদানে কেউ হয়রানি করলে আমার কাছে অভিযোগ করুন: অর্থমন্ত্রী

  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৭ পঠিত:

কর দিতে কোনো ধরনের হয়রানির শিকার হলে অভিযোগ দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ভ্যাটদাতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমার দরজা সব সময় আপনাদের জন্য খোলা।

কর প্রদানে কেউ হয়রানি করলে সরাসরি আমার কাছে অভিযোগ করুন। তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ প্রতিশ্রুতি আমি আপনাদের দিচ্ছি।

মঙ্গলবার রাতে শেরে বাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় ভ্যাট দিবস ও ভ্যাট সপ্তাহ ২০১৯ উপলক্ষে আয়োজিত এক মতবিনিময় ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা কারো ওপর কর চাপিয়ে দেয়নি। আমরা ট্যাক্সটাকে স্বাচ্ছন্দ্য করেছি। যাতে করে সবাই কর দিতে পারেন। আমাদের যা সম্পদ রয়েছে এটির যথাযথ ব্যবহার করে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কাজ করে যাব।

সবাইকে কর দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বাড়ি-গাড়ি, টাকা-পয়সা কার জন্য করছেন? আপনার নাতি-নাতনি, ছেলে-মেয়ের জন্য। যদি কোনোদিন রাজস্ব কর্মকর্তা গিয়ে প্রশ্ন করেন কোথা থেকে আসলো বাড়ি-গাড়ি, টাকা পয়সা। কী উত্তর দেবেন? আপনি আপনার ছেলে-মেয়ের কাছে ছোট হয়ে যাবেন। নিজেকে ছেলে মেয়ের কাছে ছোট করবেন না।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছাড় দেয়ার কারণে কর জিডিপি পরিমাণ কম জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, অনেক প্রয়োজনীয় পণ্যে আমরা ট্যাক্স ছাড় দিচ্ছি। বিভিন্ন খাতে আমরা অনেক বেশি ট্যাক্স ছাড় দিচ্ছি। এত ছাড় দেয়ার কারণে আমাদের কর জিডিপির পরিমাণ কম। তা না হলে আরও অনেক বেশি হতো।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য সুলতান মো. ইকবালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এনবিআর’র সদস্য খন্দকার মুহাম্মদ আমিনুর রহমান ও আব্দুল মান্নান শিকদার।

অনুষ্ঠানে আরএফএল ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডসহ ১৪৪টি প্রতিষ্ঠানকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য সর্বোচ্চ ভ্যাটদাতার পুরস্কার দেয়া হয়। এর মধ্যে জাতীয় পর্যায়ে তিন ক্যাটাগরিতে ৯টি ও জেলা পর্যায়ে ১৩৫টি
প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর :

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৪৯
সুস্থ
১৯
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
৭৪৬,০৬২
সুস্থ
১৫৭,০৭৮
মৃত্যু
৩৫,৩৪৬
২০১৮-২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত বাংলার আলো বিডি  
Design & Developed By NewsTheme.Com