নোটিশ :
সংবাদ শিরোনাম
হরিপুরে প্রতিবেশির ঘর থেকে শিশুকন্যার মরদেহ উদ্ধার ! উলিপুরে ২৫’শ টাকার সুবিধাভোগীদের তালিকায় ইউপি সদস্য ও তার স্বামীর মোবাইল নম্বর! ঠাকুরগাঁওয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ১৭ জন করোনায় আক্রান্ত; আক্রান্তরা সকলে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ফেরত ছুটি শেষে এই সকল শর্ত মেনে চলতে হবে ১৫ জুন পর্যন্ত দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক শনাক্ত, মৃত্যু ১৫ পীরগঞ্জে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ ২১ টি পরিবার পেল নগদ অর্থ ও ঢেউটিন ঠাকুরগাঁওয়ে ঝড়ের তাণ্ডবে গাছ-পালা ও ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত শর্ত সাপেক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ের সকল দোকানপাট খোলা রাখার সিদ্ধান্ত ঠাকুরগাঁওয়ে নতুন করে চারজন করোনায় আক্রান্ত; আক্রান্ত বেড়ে দাড়ালো ৬৭ জনে ঠাকুরগাঁওয়ে আজ নতুন করে কেউ করোনায় আক্রান্ত হননি; ২৯ জনের নমুনা প্রেরণ

করোনা : জনশূন্য হচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের সড়ক

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ, ২০২০
  • ৮৮ পঠিত:

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ সারবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে (কোভিড-১৯) করোনা ভাইরাস। সেই সাথে বেড়েই উঠেছে আতঙ্ক। ইতিমধ্যে বাংলাদেশে ৪৪ জনের শরীরে এই করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

দিনের পর দিন দেশে বেড়েই চলছে এর আতঙ্ক।

ঠিক এমনি আতঙ্কে ধীরে ধীরে ফাকা হতে শুরু করেছে উত্তরের জেলা ঠাকুরগাঁওয়ের সড়কগুলো। সকাল থেকেই সারাদিনেই যেন নেই সড়কগুলোতে তেমন কোন জনগন। ধীরে ধীরে সড়কে কমে আসছে সড়কে জনগনের চলাফেরা। বিপাকে পড়ছেন দিনমজুরেরা। কি করবেন এমনি চিন্তায় যেন মাথায় হাত তাদের।

বৃহস্পতিবার শহরের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন জনসমাগম এলাকাগুলো আজ নির্জন হয়ে গেছে। অধিকাংশ রাস্তাই যেন প্রায় লোকশূন্য। দাঁড়িয়ে রয়েছে গুটি কয়েক রিকশাচালক। বন্ধ হয়ে রয়েছে সকল দোকানপাট। দেখে যেন মনে হচ্ছে জনগন নিজেই নিজেদের করেছেন লকডাউন।

অপরদিকে এই ভাইরাসের সংক্রামন এড়াতে ঠাকুরগাঁওয়ে জোরদার করা হয়েছে সেনাবাহিনীর টহল। ইতিমধ্যে জেলা-উপজেলা জুড়ে ২৫০জনে সেনাবাহিনী কাজ শুরু করেছে। বিদেশ ফেরত প্রবাসী হোস কোয়ারাইন্টাইনের বিষয় নিশ্চিত করার পাশাপাশি একসঙ্গে একাধিক ব্যক্তি চলাচল,বাজার মনিটরিং সহ সকল দিকেই নজর রাখছেন তারা।

শহরের চৌড়াস্তা মোড়ে কথা হয় রিকশা চালক জয়নালের সাথে। সকলকে ঘড়ে থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে আপনি কেন বাহিরে এমনি একটি প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রিকাশা না চালাইলে কিভাবে চলবো। খাওয়ার পাবো কিভাবে। আমারা দিনমজুর দিনে আনি দিনে খাই। আজ রাস্তা লোক নেই,তাই আমাদের ভাড়াও নেই তেমন। কিভাবে কি করবো একমাত্র উপর আল্লাহ যানে।

কথা হয় আরেক রিকশা চালকের সাথে তিনি জানান,শুনেছি এই ভাইরাসের কথা। কিন্তু ঘড়ে থাকলে কে খিলাবে আমাদের? কিভাবে দিন পাড় করবো। আজকেই রাস্তায় লোক নাই বলাই যায়। না যানি কাল কি হবে। হয় ভাইরাসে মরবো না হয় না খেয়ে।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড.কেএম কামরুজ্জামান সেলিম বার্তা২৪’কে জানান,ইতিমধ্যে আমাদের জেলায় প্রায় অনেক মানুষেই ঘড় থেকে বের হচ্ছেনা। আমরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সকলকে বলা হয়েছে যারা অসহায় দরিদ্র তাদের তালিকা করা হয়, যারা দিনে আনে দিনে খায়। যদি কখনো লকডাউন করা হয় তাহলে এই তালিকার ভিত্তিতে তাদরে পাশে থাকার চেষ্টা করবো। সেই সাথে সমাজের ধনী-বিত্তবান যারা আছেন তারাও যাতে দূর সময়ে দরিদ্রদের পাশে এগিয়ে আসেন এটাই আহব্বান করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর :

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৪০,৩২১
সুস্থ
৮,৪২৫
মৃত্যু
৫৫৯

বিশ্বে

আক্রান্ত
৫,৯০৯,০০৩
সুস্থ
২,৫৮১,৯৫১
মৃত্যু
৩৬২,০৮১
২০১৮-২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত বাংলার আলো বিডি  
Design & Developed By NewsTheme.Com