শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায় ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ দফা দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন পূজা মণ্ডপে সন্ধ্যায় আরতির পর প্রবেশ নিষেধ

উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে ইয়াবা খাওয়াচ্ছেন ইউপি সদস্য

স্টাফ রিপোর্টার
  • হালনাগাদ সময় : শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৪৬ বার
উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে ইয়াবা খাওয়াচ্ছেন ইউপি সদস্য

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নূর হোসেন মাসুদ ওরফে মাটি মাসুদকে নিজ কার্যালয়ে ইয়াবা সেবন করতে দেখা গেছে। সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে তাকে ইয়াবা সেবন করতে দেখা যায়। আর তাকে ইয়াবা সেবনে সহযোগিতা করছেন জামালউদ্দিন বাহার ওরফে গুটি বাহার; যিনি স্থানীয় ইউপি সদস্য।
ইউপি সদস্য বাহারও একজন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা। মাসুদ ও বাহারের রাজনৈতিক দলের সহযোদ্ধারা জানান, প্রায় এক যুগ ধরে রাজনৈতিক পদের বলয়ে নূর হোসেন মাসুদ বেগমগঞ্জ ও তার আশপাশে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ শুরু করেন। এরপর ধাপে ধাপে বেপরোয়া হয়ে ওঠেন মাদকসেবী মাসুদ।

তারা আরো জানান, মাসুদের আধিপত্য দিন দিন বাড়ছিল। প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসার পাশাপাশি দখল বাণিজ্যও সমানতালে চালিয়ে যান তিনি। তার ভয়ে ভুক্তভোগীসহ স্থানীয়রা মুখ খোলার সাহস পাননি।

নেতা-কর্মীরা জানান, মাদক ব্যবসার পরিধি বেশ বড় করেছেন মাসুদ। তার ইশারায় ইউপি সদস্য বাহারও মাদক ব্যবসায় সম্পৃক্ত হন। কালো টাকার জোরে রাজনৈতিক দলের উপজেলার আহবায়ক পদও বাগিয়ে নেন তিনি। ২০১৯ সালে বেগমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানও নির্বাচিত হন।

মাসুদের অনৈতিক কর্মকাণ্ডে তার রাজনৈতিক সহযোদ্ধারা ছিলেন বিরক্ত। দলের ত্যাগী বা স্থানীয় নেতা-কর্মীদের তোয়াক্কাই করতেন না মাসুদ। নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে এরইমধ্যে মাসুদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে সহযোদ্ধারা দলীয় কেন্দ্রে চিঠি দেয়।

চিঠিতে বলা হয়, নূর হোসেন মাসুদ দীর্ঘদিন থেকে ইয়াবা সেবনসহ বিভিন্ন সংগঠন বিরোধী অনৈতিক কাজে লিপ্ত রয়েছে। এতে দলের ভাবমূর্তি ব্যাপকভাবে ক্ষুন্ন হচ্ছে। দলের সুনাম ও শৃঙ্খলা রক্ষায় মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবীকে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে অব্যাহতি দেয়ার জোর সুপারিশ করা হলো।

এদিকে ইয়াবা সেবনের দুটি ছবি চিঠিতে সংযুক্ত করে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় নেতা-কর্মীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪১,৯৯২,০১৩
সুস্থ
৩১,১৮৪,৫৪৪
মৃত্যু
১,১৪২,৭৩১
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102