মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১২:১২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্গাপূজা উপলক্ষে মির্জা ফয়সাল আমিনের এর পক্ষ থেকে আর্থিক অনুদান মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজোর মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু ঠাকুরগাঁওয়ে সংঘর্ষ এড়াতে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি ডিবির অভিযানে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে পুকুর থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার! ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্রদের মাঝে গরুর বাছুর বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে মায়ের কবরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার ২ অভিনন্দন মোখলেছুর রহমান খান ভাসানী ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিমের যৌথ প্রচেষ্টায় কবরস্থান পেলো বেদে সম্প্রদায় ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ দফা দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

আমির খানের দেহরক্ষী ছিলেন কেডি পাঠক, কাজ করেছেন মান্নার সঙ্গেও

বিনোদন ডেস্ক
  • হালনাগাদ সময় : শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩৮ বার
আমির খানের দেহরক্ষী ছিলেন কেডি পাঠক, কাজ করেছেন মান্নার সঙ্গেও

কেডি পাঠক—তিনি ছোটপর্দার বড় তারকা। যারা নিয়মিত সিরিয়াল দেখেন, তাদের বেশিরভাগই এ চরিত্রের সঙ্গে পরিচিত। কেডি পাঠক চরিত্রে যে বুদ্ধিমান মানুষটি অভিনয় করেন, তার আসল নাম রণিত রায়। একসময় ছিলে আমির খানের দেহরক্ষী, বর্তমানে তিনিও বিখ্যাত।

ভারতের জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘আদালত’র মূল চরিত্র উকিল কেডি পাঠকের কথাই বলা হচ্ছে। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে প্রচার হওয়া সকল সিরিয়ালগুলোর চরিত্রদের মধ্যে জনপ্রিয়তার শীর্ষে এই নাম। হিন্দি ও বাংলা ভাষায় প্রচার হওয়া এই সিরিয়াল শুধু ভারতেই নয়; দারুণ জনপ্রিয় বাংলাদেশ, পাকিস্তানসহ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা হিন্দি ও বাংলা ভাষার দর্শকদের কাছে।

সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যম পিংক ভিলাকে রণিত বলেন, আমার সৌভাগ্য যে আমির খানের সঙ্গে বছর কাটিয়েছি। আমি তার দেহরক্ষী ছিলাম। আমি একটি কোম্পানি শুরু করেছিলাম। কিন্তু আমার কোনো কাজ ছিল না। আমাকে কিছু একটা করতেই হবে। আমি খুব সৌভাগ্যবান ছিলাম, কারণ আমির খানের সঙ্গে দীর্ঘ সময় পার করেছি। তার কাছ থেকে আমি অনেক কিছুই শিখেছি। এখনো শিখেই যাচ্ছি।

এরপর ক্যারিয়ারের শুরুতে বলিউডে নায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করেছেন। তিনি হিন্দি ছাড়াও তামিল ও বাংলা ভাষার সিনেমাতে কাজ করেছেন। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশের নায়ক মান্নার সঙ্গেও একটি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। শাহ আলম কিরণ পরিচালিত ছবিটির নাম ‘শেষ বংশধর’।

১৯৮৪ সালে শিশু শিল্পী হিসেবে প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তবে ১৯৯২ সালে মূল ভূমিকায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন রণিত। তার অভিনীত চলচ্চিত্রের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে- জান তেরে নাম, সৈনিক, বম্ব ব্লাস্ট, হালচাল, মেঘা, আর্মি, দানবীর, অগ্নি স্বাক্ষী, গ্ল্যামার গার্ল, হাম দিওয়ানা পেয়ার কা, খাতরন কী খিলারি, শেষ বংশধর, নিশান, দ্যাট গার্ল ইন ইয়েলো বুটস, মিডনাইট’স চিলড্রেন, স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার, শুট আউট এট ওয়াডালা, বস, আগলি, গুড্ডু, টু স্টেইটস, সাত কদম, কাবিল, সরকার ৩, মেশিন ইত্যাদি।

রণিত বলেন, আমি সব সময়ই তারকা হতে চেয়েছি। মুম্বাইয়ে আসি এ চিন্তা নিয়েই। আমি চেয়েছি আমি বড় গাড়ি কিনব। মেয়েরা আমরা নাম ধরে চিৎকার করবে, ঠিক এখন যেমনটি হয়। যখন আমি ব্যর্থ হয়েছি, পরে ভালো কিছু হয়েছে।

রণিত রায় জানান, নিজেকে শেষ করে দেয়া কোনো সমাধান নয়। ১৯৯২ সালে আমার প্রথম ছবি ‘জান তেরে নাম’ মুক্তি পেয়েছিল। ছবিটি সুপার হিট হয়। আজকালকার দিনের ১০০ কোটি টাকার ছবি। প্রথম ছবি এই স্তরের ছিল। তার পর আচমকাই ৬ মাস কোনো কাজ পাইনি। বেশ কিছু ছোটখাটো কাজ করেছিলাম সেই সময়। প্রায় ৩ বছর ধরে সেগুলোই করে গিয়েছি। ৯৬ সাল পর্যন্ত।

রণিত রায় ১১ অক্টোবর ১৯৬৫ সালে ভারতের নাগপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন ব্যবসায়ী বাবার প্রথম সন্তান। তার ছোটভাই রোহিত রায়ও একজন টিভি অভিনেতা। তার বাল্যকাল আহমেদাবাদ ও গুজরাটে কাটে।ব্যক্তিগত জীবনে ২৫ ডিসেম্বর ২০০৩ সালে অভিনেত্রী ও মডেল নিলাম সিংয়ের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের তিনটি সন্তান রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪৩,৭৯০,৫৪৩
সুস্থ
৩২,১৮২,৭৩৭
মৃত্যু
১,১৬৪,৬০৯
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- বাংলার আলো বিডি
themesba-lates1749691102