বৃহস্পতিবার , নভেম্বর ১৫ ২০১৮
Breaking News

২০ দলীয় জোটে ভাঙন শুরু বেরিয়ে গেলো ন্যাপ ও এনডিপি

বাংলার আলো ডেস্ক: নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি যখন সরকারবিরোধী দল ও ব্যক্তিদের নিয়ে জোটের আকার বাড়াতে ব্যস্ত, ঠিক তখনই ভেঙে গেল দলটির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। গত মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে ২০ দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ন্যাপ ও এনডিপি।

মঙ্গলবার বিকালে গুলশানের ইমানুয়েল’স ব্যাংকুয়েট হলে বিকাল ৩টায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তারা জোট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়। এ সময় দল দুটির পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি।

জোট ভেঙে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল গাণি বলেছেন, ন্যাপ ও এনডিপি সাংবিধানিক ও নিয়মতান্ত্রিক রাজনীতির পক্ষে। শুধু ক্ষমতার পালা বদলের নামে কোনো অশুভ শক্তির ক্ষমতা গ্রহণ করে দেশকে রাজনীতিশূন্য করার কোনো অপচেষ্টায় অংশগ্রহণ করুক, একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল হিসেবে আমরা তা প্রত্যাশা করি না।

তিনি আরও বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচনে নানা ধরনের লোভনীয় প্রস্তাব থাকার পরেও জোটের নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলো কেউ তৎকালীন ১৮ দলীয় জোট ছাড়েনি। কিন্তু এই ত্যাগকে বিএনপি প্রধান রাজনৈতিক দল হিসেবে কোনো মূল্যায়ন করেছে বলে আমাদের কাছে কখনো প্রতীয়মান হয়নি। বরং তাদের ভাবখানা ছিল এমন যে আমরা যাব কোথায়?’

‘বিএনপি সব সময় তার শরিকদের অন্ধকারে রাখার অপচেষ্টা করে গেছে। জাতীয় নির্বাচন কাছাকাছি হলেও সে বিষয়ে বিএনপি তার অবস্থা শরিকদের কাছে পরিষ্কারভাবে ব্যাখ্যা করছে না।’

ন্যাপ ও এনডিপির অন্য নেতারা বলেন, বিএনপির নেতৃত্বে চার দলীয় জোটকে সম্প্রসারণ করে ১৮ দলীয় জোটে রূপান্তর হওয়ার পর থেকে ন্যাপ ও এনডিপি এ জোটের অংশীদার। তবে ড. কামালের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্ট গঠনের মধ্য দিয়ে ২০ দলীয় জোটকে নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা চলছে। আর এর মধ্য দিয়ে বিএনপিই মূলত জোটকে বিলুপ্ত করে দিতে চাইছে।

তারা জানায়, বিএনপি জোটের শরিক হিসেবে আমরা সাধ্যমতো অবদান রাখার চেষ্টা করেছি। নিজেদের মতবিরোধী ও মতাপার্থক্য থাকলেও জোটের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সব সময় আন্তরিক ছিলাম।

জেবেল গাণি বলেন, বিভিন্ন বৈঠকে জোট শরিকদের মনোনয়নের বিষয়টি সামনে আনতে চাইলেও বিএনপি কৌশলে তা এড়িয়ে যায়। আর ১/১১ কুশীলব, মাইনাস টু ফর্মুলা বাস্তবায়নকারীরা যখন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নামে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে, তখন আমরা মনে করি, বিএনপি তার সব নৈতিক অবস্থা থেকে বিচ্যুত হয়েছে।

ন্যাপ ও এনডিপি বেরিয়ে যাওয়ার মাধ্য দিয়ে ২০ দলীয় জোটের ভাঙন স্পষ্টত দৃশ্যমান।

Check Also

ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগে জড়িতরা বিএনপির নয়: রিজভী

বাংলার আলো ডেস্ক: বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেছেন, পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগে হেলমেট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *