সোমবার , সেপ্টেম্বর ২৪ ২০১৮
Breaking News

বাস টার্মিনাল নির্মাণের দাবিতে দেবীগঞ্জে সড়ক অবরোধ

এ রউফ,পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি:  পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় বাস টার্মিনাল নির্মাণের দাবিতে প্রায় তিন ঘন্টা দেবীগঞ্জ- নীলফামারী মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে মোটর পরিবহণ শ্রমিকরা।

গতকাল সোমবার সকাল ১১ টা থেকে ২ টা পর্যন্ত তারা দেবীগঞ্জ ট্রাফিক (মোড়ে) সড়কে বসে মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।

এ সময় সড়কের দুই পাশে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে। সাধারণ যাত্রীরা পড়েন দুর্ভোগে।

মোটর পরিবহণ শ্রমিকরা জানায়, গত ১০ মার্চ সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপসচিব মাহবুবুর রহমান ফারুকির নেতৃত্বে দেবীগঞ্জ উপজেলা সদরের করতোয়া সেতুর টোল প্লাজা থেকে উপজেলা পরিষদ পর্যন্ত সড়কের দুই পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

এ সময় দেবীগঞ্জ বিজয় চত্বর এলাকায় থাকা প্রায় অর্ধশতাধিক দূরপাল্লার যানবাহনের টিকিট কাউন্টারও ভাঙা হয়।

শ্রমিকরা দাবী করেন বাস টার্মিনাল না থাকায় বাধ্য হয়েই তাদের সড়কের পাশে টিকিট কাউন্টার করতে হয়েছে।

প্রশাসন টিকিট কাউন্টারগুলো ভেঙে দেয়ায় দেবীগঞ্জ থেকে পঞ্চগড়, নীলফামারী, রংপুর, ঢাকাগামী বিভিন্ন যানবাহন রাস্তার উপরই দাঁড়িয়ে যাত্রী উঠানামা ও পণ্য বহন করছে। একটি স্থায়ী বাস টার্মিনাল নির্মাণ করা হলে এই সমস্যা আর থাকবে না। তাই তারা দ্রুত দেবীগঞ্জে টার্মিনাল নির্মাণের দাবি জানান।

পরে দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলামের মাধ্যমে বাস টার্মিনাল নির্মাণের দাবিতে সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রধান করেন।

জেলা মোটর পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়ন দেবীগঞ্জ শাখার সভাপতি আ স ম নুরে আজাদ জানান, দেবীগঞ্জে একটি বাস টার্মিনাল নির্মাণের দাবি দীর্ঘদিনের। বাস টার্মিনাল না থাকায় সড়কের উপর যেখানে সেখানে যাত্রী ও পণ্য ওঠানামা করা হচ্ছে। এখন দেবীগঞ্জে একটি বাস টার্মিনাল নির্মাণের বিকল্প নেই।

শ্রমিকরা জানান, সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি দিয়েছি। আমাদের দাবি না মানা হলে আরও কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

Check Also

‘আপনার যেটা প্রয়োজন সেটা নিয়ে যান, আর যেটা অপ্রয়োজনীয় সেটা রেখে যান’ কর্মসূচির উদ্বোধন

জাকির হোসেন, পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও): ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে সেচ্ছাসেবী সংগঠন সঙ্গীর ব্যতিক্রম ধর্মী উদ্দ্যোগ আপনার যেটা প্রয়োজন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *